নব্য সরকারি শিক্ষকরা শুকরিয়ার বদলে রিট করে প্রাথমিক শিক্ষাকে অন্ধকারে ঠেলে দিচ্ছে

রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০১৭ | ৬:৪১ পূর্বাহ্ণ | 86 বার

নব্য সরকারি শিক্ষকরা শুকরিয়ার বদলে রিট করে প্রাথমিক শিক্ষাকে অন্ধকারে ঠেলে দিচ্ছে

যদিও আমি একজন নব্যসরকারি( ২০১২ নিয়োগ)শিক্ষক। তথাপি কিছু কথার অবতারনা না করলেই নয়। অবগত হলাম যে আবারও মুনছুর সাহেব পদোন্নতির বিরুদ্ধে মামলা করছে। আসলে এ মুনছুর সাহেব কি অন্তরের দিক হতে শিক্ষক হতে পেরেছে? একজন শিক্ষক তো এত পেঁচুক ও মামলাবাজ হবার কথা নয়। একটা বিষয়ে কেন বারবার পেঁচাচ্ছে? আরে যেখানে শিক্ষক হিসেবে আবেদন করার যোগ্যতায় নেই সেখানে হয়ে গেলেন সিনিয়র সরকারি শিক্ষক অথবা প্রশি। পেতেন ৫০০০ টাকা বেতন এখন পাচ্ছেন ২০০০০ টাকা। তারপরও শুকরিয়া বাদে খালি রীট রীট রীট।
এইরীট যে প্রাথমিক শিক্ষক ও শিক্ষাকে কত অন্ধকারে ঠেলে দিচ্ছে সে কি বোঝেনা? একজন এস এস সি পাশ হয়ে এখন এম এ পাশ একজন শিক্ষকের চেয়ে বেশি বেতন পাচ্ছেন তারপরও হচ্ছেনা? যদিও এ অসম যোগ্যতা ও সম বেতন প্রাথমিক শিক্ষার কলঙ্ক। এতদিন যে পুরাতনরা তালাচাবি মেরে রাস্তায় নামেনি এটা আমাদের কপাল।
পাঠদানের ক্ষেত্রে যে কত বাহাদুর তা তো আমি জানি। পেটেত বোম মারলে ওয়ার্ড বের হয়না আর শুধু খাই খাই চাই চাই।
শিশুকালে শুনতাম যে “ফকিন্নি ধনী হলে বাপরে কয় শালা “। এখন দেখছি কথা সত্য।

লেখক:জামাল উদ্দীন

সহকারি শিক্ষক(নব্য সরকারি)

দিনাজপুর।https://web.facebook.com/md.jamal.948

[লেখাটি একান্তই লেখকের নিজস্ব মতামত ,যা তার ফেসবুক টাইমলাইনেও প্রকাশিত]

zahidit

Development by: zahidit.com

Select language »