মঙ্গলবার ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রাথমিক শিক্ষক বদলি

অনলাইন বদলি বনাম শিক্ষকের বোবা কান্না

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   শুক্রবার, ১৩ জানুয়ারি ২০২৩ | প্রিন্ট

অনলাইন বদলি বনাম শিক্ষকের বোবা কান্না

#বদলির_আবেদন করার পর রেজাল্ট হওয়ার আগেই চোখের সামনে তা #রিজেক্ট_হওয়ার_অবস্থাটা_অমানবিক মনে হয় আমার কাছে। #Mind_It!

#বিপদগ্রস্ত_শিক্ষক যিনি দশ কিলোমিটার, বিশ কিলোমিটার, পঞ্চাশ কিলোমিটার নদী পথ, ভাঙা পথ, জ্যামের পথ, বাহনহীন পথ পাড়ি দিয়ে বছর থেকে বছর এভাবেই নিয়মিত বিদ্যালয়ে এসে শিক্ষকতা করে আসছেন। আশায় আশায় বছর থেকে বছর বহু কাঙ্ক্ষিত দিনক্ষণ আসার পর বদলির সোনার হরিণ নামক আবেদন লিংকটি পেয়ে হাঁপাতে হাঁপাতে কোনো রকমে বদলির আবেদনটি সাবমিট করেছেন যেনো অনেক দূরত্বের যানবাহনহীন পথ দৌড়ে এসে কোনো রকমে ট্রেন ধরা আরকি! এই আবেদনের সাথে মিশে আছে একজন শিক্ষকের এতো বছরের লম্বা জার্নি করা চাকরি জীবনের জমানো দুঃখের দিন ঘুচানোর স্বপ্ন। এ আবেদনের সাথে মিশে আছে বাসা থেকে বিদ্যালয় পর্যন্ত অসংখ্য বিপদজনক স্মৃতি ভুলার আশা। এ আবেদনের সাথে মিশে আছে স্কুল সময়ের অতিরিক্ত আরও এক স্কুল সময় ক্ষয়ে যাওয়ার দিন ভুলার আশা। এ আবেদনের সাথে মিশে আছে নিজের পরিবারের জন্য কিছু সময় বেশি দিতে পারার স্বপ্ন। এতে মিশে আছে পথের ঝামেলামুক্ত মনে শিক্ষার্থীদেরকে আরও নতুন কিছু শেখানোর স্বপ্ন।


আমি এমন একটা ঘটনা জানি, যেখানে নির্ধারিত সময় পার হতে না হতেই শিক্ষা অফিসার বাদ্য করেছেন বদলির আবেদন রিজেক্ট করার দরখাস্ত দিতে। এ কেমন আচরণ? এ কেমন মানবতা? বদলির আবেদন করার পরপরই তা খারিজ?!?!? কেনো এতো তাড়া? একটু সময় কি নেওয়া যেতো না? আবেদনকারী অন্তত নিজেকে অসহায় ভাবতো না যদি সকলের বদলি আবেদনের ফলাফল একসঙ্গে দেয়ার সিস্টেম চালু থাকতো। অথবা একেক অফিসারের কাছে একেক নিয়ম চালু না থাকতো।

আমি কাউকে দোষ দিবো না। দোষটা হয়তো সিস্টেমের। দোষটা হয়তো শিক্ষকের। কেনো তিনি নিজের সুবিধা নিতে বদলির জন্য আবেদন করেছেন! মরুক শালা শিক্ষক! থার্ড ক্লাস হয়েছিস, আবার অন্যের চেয়ে দুর্বল! এতো সুবিধা পেতে চাস কেন্?


#এসব_দুর্বল_শিক্ষকরা হয়তো এভাবেই পিষে যাচ্ছে সবলের শক্ত যাতায় 😥! মরে যাচ্ছে, ভেসে থাকছে অনেক শিক্ষক অসংখ্য সবলের ঠেলায়।

#ওরে_শিক্ষক! সয়ে যা, দেহ মনে যতোটা সয়! যদি পারিস সেই সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করিস, যে সময় মহান বিচারক তোর অধিকার বঞ্চনার ফল হিসেবে তোর মূলধন লাভসহ ফেরত দিবেন!


#দায়িত্বশীল_কর্তৃপক্ষ_কী_এসব_অবস্থা_জানেন???
#নাকি_এভাবেই_চলবে_বদলির_শৃঙ্খলা?

লেখক।। মাহমুদ নাইস, সহকারী শিক্ষক, চুপাইর দক্ষিণ পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, গাজীপুর।

সূত্রঃ ফেসবুক পোষ্ট

Facebook Comments Box

Posted ১০:৩৬ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ১৩ জানুয়ারি ২০২৩

শিক্ষার আলো ডট কম |

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  
অফিস

১১৯/২, চৌগাছা, যশোর-৭৪১০

হেল্প লাইনঃ 01644-037791

E-mail: shiksharalo.news@gmail.com