শনিবার ২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মহামারী করোনা–আজিজুন নাহার আঁখি

আজিজুন নাহার আঁখি   |   শুক্রবার, ১৩ আগস্ট ২০২১ | প্রিন্ট

মহামারী করোনা–আজিজুন নাহার আঁখি

*মহামারী করোনা*
—-আজিজুন নাহার আঁখি

এই দুনিয়ায় এলো রে
কি মহামারী করোনা,
এই ভাইরাসে ধনী গরিব
কাউকে তো ছাড়ে না।


এই রোগেতে ছোট বড়
সবাই হয় আক্রান্ত,
শরীরটা হয় অনেক দুর্বল
আর অনেক ক্লান্ত।

যার হয়েছে এই রোগ
সেই বুঝে কতো জ্বালা,
নিয়ম মেনে চলতে হয়
করা যায় না অবহেলা ।


যে পরিবারে করোনা ভাইরাস
দিয়েছে তীব্র হানা,
ঘরের ভিতর থাকতে হয়
বাইরে যেতে মানা।

যায় না ছোঁয়া যায় না ধরা
এমন এক অসুখ,
কাছে কেউ তো আসেনা
ফিরিয়ে নেয় মুখ।


পাড়া প্রতিবেশী কেউ নেয় না
ভুক্তভোগীর খোঁজ,
আগে যারা আসতো
সেই বাড়িতে রোজ।

যাদের পরিবার হয়েছে
এই রোগের ভাগীদার,
তাদের কষ্ট ভোগ করার
নেই তো অংশীদার।

অসুস্থতায় সেবা করতে
ডাক্তার নার্স থাকে দূরে,
তাইতো রোগী ভয় পেয়ে যায়
প্রাণটা শুধু ডরে।

হাসপাতালে নাই যে জায়গা
রোগীতে একাকার,
একটুখানি অক্সিজেনের জন্য
শুধু করছে হাহাকার।

এই মহামারীর তাণ্ডবে
শুধু ধুকপুক করে প্রাণ,
স্বজন হারিয়ে পরিজন
হয়ে যায় অজ্ঞান।

অক্সিজেনের অভাবে
নিঃশ্বাস হয়ে যায় বন্ধ,
খাবারে নেই রুচি
পাওয়া যায় না কোনো গন্ধ।

সাধারণ অসুখ হলে পরে
সবাই নিত খোঁজ,
রোগী দেখতে আসতো
কেউ না কেউ রোজ।

যারা ছিলো কাছের মানুষ
তারা আজ দূরে,
ভুক্তভোগী পরিবার কষ্ট পায়
কুঁড়ে কুঁড়ে।

ভয় পেয়ে কাছের মানুষ
নেয় মুখ লুকিয়ে,
এই বিপদে আপনজনও
দেখে না একটু তাকিয়ে।

এই রোগেতে কষ্টে ভোগে
হতে হয় যে কাতর,
গায়ে হাত বুলিয়ে কেউ তো
করে না আদর।

এই রোগেতে ভুগলে পরে
চেনা যায় কে আপন,
বিপদে যে পাশে থাকে
সেই তো প্রকৃত স্বজন।

করোনাতে মারা গেলে
কেউ দেখে না সে লাশ,
বেঁচে থাকতে কতো মানুষ
থাকতো চারিপাশ।

নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষ
আনতে হয় অনেক কষ্ট,
ঘরের বাইরে যাওয়া মানা
জীবন হচ্ছে নষ্ট।

মোবাইল ফোনে হয় যোগাযোগ
হয় অনেক আলাপ,
কষ্টে বুক ফেটে যায়
করা যায় না প্রলাপ।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাছে আসতে
নেই তো কভু মানা,
এই কথাটি জেনেও
কেউ তো কাছে আসেনা।

বাইরে গেলেই মাস্ক দিয়ে
ঢাকতে হয় নাক মুখ,
চেনা মানুষ যায় না চেনা
কষ্ট ভরে বুক।

কিছু কিছু মানুষ আছে
স্বাস্থ্যবিধি মেনে আসে কাছে,
নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষ দেয়
যে যা বলুক পাছে।

শিশুদের ঘরের ভিতর রাখতে
হয় যে অনেক কষ্ট,
জীবনটা যে হয় এলোমেলো
বুঝা যায় স্পষ্ট।

ঘরের ভিতর থাকতে থাকতে
শিশু হচ্ছে মানসিক রোগী,
এ রোগের যে কতো জ্বালা
বুঝে শুধু ভুক্তভোগী।

স্কুল কলেজ সব বন্ধ
হয় না লেখাপড়া,
ঘরে বসে ভিডিও গেমসে
মনটা থাকে ধরা।

মানুষ মানুষের জন্য
এটাইতো মানব ধর্ম,
মানবিকতা ভুলে করে শুধু
সবাই অধর্ম।

হে বিধি বন্ধ করো
তোমার লীলা খেলা,
ক্ষমা করে দাও মোদের
করো না অবহেলা।

তুমি মোদের রক্ষাকারী
তুমি একমাত্র সহায়,
তুমি ছাড়া এ পৃথিবী
ঠিক হবার নেই উপায়।

জায়নামাজে নত হয়ে
করছি প্রার্থনা সদাই,
তুমি হলে অসীম দয়ালু
সেটা মানি সবাই।

হে আল্লাহ আমরা দিশেহারা
পাই না চলার গতি,
বাঁচাবে তোমার মানবকূল
বিশ্বাস রাখি তোমার প্রতি।

শিক্ষার আলোর ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Facebook Comments Box

Posted ৮:০৫ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ১৩ আগস্ট ২০২১

শিক্ষার আলো ডট কম |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

Blooming Child – Shamsun Nahar Zeba

(554 বার পঠিত)

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  
অফিস

১১৯/২, চৌগাছা, যশোর-৭৪১০

হেল্প লাইনঃ 01644-037791

E-mail: shiksharalo.news@gmail.com